Cultural

International

এস-৪০০ মিসাইল দিয়েই কি রাশিয়া তুরস্ক ভাই-ভাই?

বাজারের আকাশে মন্দার মেঘ যত ঘনীভূত হবে, যুদ্ধের ঝলকানি ক্রমশ সচরাচর হবে আর সেই সঙ্গে চলবে শিবিরে বিভক্তিকরণ। আমরা যদি ভালভাবে লক্ষ্য করি, দেখতে পাবো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হোক, বা রাশিয়া উভয় ডিলের ক্ষেত্রেই আদতে প্রত্যেক দেশের একটাই উদ্দেশ্য, যুদ্ধের রুট ম্যাপ তৈরি করে রাখা।

News

ভারতের ২৮জন অর্থমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বঞ্চনার কালপঞ্জি

১। ষণ্মুঘম শেট্টি (১৯৪৭-৪৯) —– কেন্দ্রীয় ইনকাম ট্যাক্স কমিশন বসালে এই বসন্ত মিলের মালিক কইম্বত্তুরের কিছু মিল মালিকদের প্রতি পক্ষপাত …

  • কাশ্মীরের উপর থেকে ৩৭০ ও ৩৫-এ ধারা বাতিলের প্রতিবাদে গণ-অবস্থান তিন বামদলের

    শিশুটা রাস্তায় বসে ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে আছে আর কাঁদছে। ওর মাকে কেউ একজন ধরে নিয়ে গেছে। বুঝতে পারেনি ও, …

  • তলানিতে বিক্রিঃ ১০ লক্ষ শ্রমিকের কাজ হারানোর আশঙ্কা গাড়ি-শিল্পে

    বিক্রি কার্যত তলানিতে, বিপুল সংখ্যায় অবিক্রিত গাড়ি সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে রয়েছে গাড়ি কারখানায়, ব্যাঙ্ক বহির্ভূত ফিনান্সিং কোম্পানিগুলিও(এনবিএফসি) সংকটের মুহুর্তে হাত গুটিয়ে …

  • সিনেমার মতো চিদম্বরমের গ্রেফতারিঃ শুধুই আইনি কারবার, নাকি…!

    ২জি দুর্নীতি থেকে শুরু করে যত বড় বড় আর্থিক কারচুপিতে জড়িয়ে আছেন চিদম্বরম ও তাঁর সতীর্থরা, তার কাছে এই ঘটনা অতীব নগণ্য। এখন দেখার বিষয় হল এই ফিল্মী কায়দায় গ্রেফতারী কী শুধুই চিদম্বরমের জন্য? নাকি আর্থিক কারচুপির অভিযোগের খাতায় থাকা প্রত্যেকের সাথেই এই ঘটনা ঘটবে? যদি ঘটে, তবে তা কী শুধুই বিরোধী নেতাদের ক্ষেত্রে, নাকি বিজেপি নেতাদের ক্ষেত্রেও ঘটবে, বিশেষত যেখানে জেটলি অ্যান্ড সীতারামন কোম্পানি নোটবন্দীর সময় ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্কের তথ্য বিকৃতিতে অভিযুক্ত? নাকি এর কিছুই হবে না, অভ্যন্তরীণ সমঝোতা ছাড়া? প্রশ্ন থেকেই যায়। তবে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হল, কেন ২০ তারিখে নির্দেশ জারি করে ২১ তারিখে করা হল গ্রেফতার? একটি দিন সারা দেশের সংবাদ মাধ্যমকে রমরমিয়ে নিজেদের বাজার চালানোর মোক্ষম একটি বিষয় তুলে দিয়ে গোটা দেশকে তাতে মশগুল করে রাখা হল। আর অন্য দিকে দিল্লীর রাজপথ কাঁপিয়ে চলল কাতারে কাতারে দলিত-আদিবাসীদের মিছিল। চিদম্বরমের গ্রেফতারির খবরের শোরগোলে চাপা দিয়ে দেওয়া হল দেশের তামাম শোষিত- অত্যাচারিত দলিতদের আর্তনাদকে।