Author: Deep Sarkar

  • ভবঘুরে

    আমি পথে প্রান্তরে ঘুরি , দোকানে বসে খেয়ে ফেলি সস্তার মীল্ ;দেয়ালে টাঙিয়ে রাখি ইট-বালি-ছবি, আমাকে বোম মারে রাষ্ট্রের চিল | আমি …

  • প্রসঙ্গ পুয়ের্তো রিকোঃ রিকার্ডোর টেক্সট মেসেজ সংকট এবং স্বাধীনতার লড়াই

    ইতিমধ্যে সেখানকার চলতি সরকারের গভর্নর রিকার্ডো রসেলো-র একটি বিস্ফোরক পার্সোনাল টেক্সট মেসেজ এবং ভিডিও কল লিক আউট হয়েছে যেখানে রসেলো এবং তাঁর সতীর্কেথদের নারী বিদ্বেষী এবং সমকামী বিরোধী মনোভাব পোষণ করতে শোনা যায় যার ফলে সেখানকার সাধারণ মানুষের এক বিরাট প্রতিবাদের ঝড় নেমে এসেছে। রসেলো অবশ্য এই বিষয়ে সেরকম কোনো স্বীকারোক্তি এখনো দিয়ে ওঠেননি। কিন্তু জনরোষের চাপে ২রা অগাস্ট পদত্যাগ করার কথা জানিয়েছেন। পরবর্তী সম্ভাব্য গভর্নর পেদ্রো পিয়ের্লুইসি আদতে মূল ভূখণ্ডের অধিবাসী। ফলে তিনি দ্বীপটিতে নিউ প্রোগেসিভ এবং মূল ভূখণ্ডে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সদস্য। তিনি ১১৬তম মার্কিন কংগ্রেসেরও সদস্য! এই দুমুখো মূল ভূখণ্ডের দালাল পাদিল্লার স্ক্যান্ডেলকে কাজে লাগিয়ে জনরোষকে বিপথগামী করে স্থিতাবস্থা বজায় রাখার পথেই হাঁটবে বলে জল্পনা রয়েছে। তাই স্বাধীনতার লড়াই এবং মার্কিন দাদাগিরি থেকে মুক্ত খেটে খাও-বাদীদের পরিচালিত রাজনৈতিক ব্যবস্থা প্রণয়নের লড়াই-ই একমাত্র বর্তমান ঋণ সংকট থেকে মুক্তি দিতে পারে।

  • ইকুয়াডোরের প্রেরণা দরকার পাপুয়া নিউ গিনিতে?: প্রসঙ্গ উপজাতিদের লড়াই

    এখন প্রশ্ন হলো, গোটা পৃথিবী জুড়ে পাপুয়া নিউ গিনি, একুয়াডোর, ব্রাজিল এবং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশগুলিতে যেখানে প্রায় অধিকাংশ উপজাতির মানুষগুলো সমাজের মূল ধারা থেকে বিচ্ছিন্ন, সেখানে নিজেদের হক ছিনিয়ে নেওয়ার লড়াইকে গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের রূপ দিয়ে আসলে কি যুগ যুগ ধরে চলে আসা খেটে খাওয়া মানুষগুলোর উপরেই পুঁজিপতিদের ক্ষমতা কায়েমের রাস্তা তৈরী করা হচ্ছে?

  • ইউ.এস-ইরান যুদ্ধ সংকটঃ মুনাফার ভারসাম্যের লড়াই?

    বর্তমানে ডলার-পাউন্ড-ইউরো-ইয়েন মিলিয়ে ডেরিভেটিভ বাণিজ্যের নোশনাল অ্যামাউন্ট এদের মোট জিডিপি-র ৫৪২%, যার ম্যাচিউরিটির সময়ের মধ্যে দাম ও শ্রমের ভারসাম্য না আনা গেলেই আবার আসতে চলেছে অর্থনৈতিক মন্দা। ফলে, যুদ্ধ ছাড়া এত দ্রুত মুনাফার ভারসাম্য সম্ভব নয়। তৃতীয় স্থানে যুদ্ধ পরিচালনার স্ট্র্যাটেজি হিসেবে এই নয়াউদারবাদী যুগে পুঁজির আন্তর্জাতিক চরিত্রের কারণে কোনও একটি নির্দিষ্ট জাতির স্বজাতিমত্ততাকে উৎসাহিত করার বদলে কোনও একটি বিশ্বব্যাপী নির্দিষ্ট সম্প্রদায়কে খাটো করার পন্থা অবলম্বন করা হয়েছে। নব্বইয়ের দশক থেকেই গোটা পৃথিবী জুড়ে একটা বিশেষ ধর্মের প্রতি পৃথিবীবাসীর ঘৃণার পরিমণ্ডল সৃষ্টি করেছে সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলি যার ফলে বিশ্ব জুড়ে একটি নতুন শব্দের আমদানি হয়েছে- “ইসলামিক মৌলবাদ”। এই প্রকোপ থেকে বাদ পড়েনি ইরানও।

  • প্রসঙ্গ ভেনেজুয়েলাঃ লুটে খাওয়া-দের বিরুদ্ধে খেটে খাওয়া-দের সংগ্রাম অব্যাহত

    “সমস্ত সামারাজ্যবাদী যুক্তির বিপক্ষে দাঁড়িয়ে ভেনেজুয়েলা প্রতিরোধ করছে। ওয়াশিংটন এমন এক বাধার সম্মুখীন হয়েছে যা সুপার কম্পিউটার, সুপার এজেন্ট এবং পেশাদার অরাজকতা সৃষ্টিকারীদের দিয়ে রোধ করা সম্ভব নয়ঃ সাধারণ মানুষের নিজেদের অবদমিত হওয়াকে প্রত্যাখ্যান এবং প্রতিরোধ করার প্রতি তাদের দৃঢ় সংকল্প”